Full-Width Version (true)

Thursday, August 30, 2018

একটি ওয়েব সাইট কেন লাগবে?

মানুষ চায় তথ্য প্রযুক্তির দ্বারা নিজেকে সবসময় Up to Date  রাখতে। ইন্টারনেট এর মাধ্যমেই এখন মানুষ প্রতিনিয়ত আপডেট রাখছে নিজেকে, নিজের প্রতিষ্ঠানকে, নিজের চারপাশকে। বাংলাদেশের অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলোর মতোই আপনার প্রতিষ্ঠানের একটি ওয়েবসাইট এখন সময়ের দাবী। দিন দিন মানুষ অনলাইন নির্ভর হচ্ছে, তাই বর্তমান সময় এবং আগামী দিনগুলোর কথা চিন্তা করে আপনার প্রতিষ্ঠানের ওয়েব সাইট ডিজাইন ও ডেভেলপ করা অত্যন্ত প্রয়োজন। কিভাবে একটি ওয়েবসাইট আপনার প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে নিতে পারে, তার শীর্ষ কিছু উদাহরণ নিম্নে উপস্থাপন করা হলোঃ
১.  ৩৬৫দিন/২৪ ঘন্টা সার্ভিস: রাত হোক কিংবা দিন হোক, ছুটি বা হরতাল যেকোন সময়ে আপনার ওয়েবসাইট আপনার প্রতিষ্ঠানকে সবসময় উন্মুক্ত রাখে আপনার টার্গেট কাস্টমার এর কাছে, বাড়িয়ে দেয় প্রতিষ্ঠান প্রবৃদ্ধির সম্ভাবনা।

 ২. স্বল্প ব্যয়ে বিজ্ঞাপন: আপনার প্রতিষ্ঠানের মার্কেটিং এবং ব্র্যান্ডিং এর জন্য ওয়েবসাইট একটি অন্যতম উপযুক্ত মাধ্যম। প্রিন্ট মিডিয়ার তুলনায় ওয়েবসাইটে সাশ্রয়ী খরচে বিজ্ঞাপন দেয়া যায় এবং ফেসবুক, টুইটার এর মাধ্যমে অসংখ্য মানুষের কাছে আপনার মেসেজ পৌঁছে দিতে পারেন সহজেই। একজনকে আপনি যতটা বুঝিয়ে বলতে পারবেন তারচেয়ে অনেক বেশি কিছু বুঝাতে পারবেন একটি ওয়েবসাইটের নাম দিয়ে দিলে, তা অন্য কোন মাধ্যমে পারবেন না। ওয়েবসাইটই সবচেয়ে কম খরচে বিজ্ঞাপনের মাধ্যম।

.অনলান নোটবুক হিসেবে ওয়েবসাইট: ওয়েবসাইট Online Notebook হিসেবে কাজ করে যেখানে সকল তথ্য প্রয়োজনীয় ছবি সহ সুবিন্যস্তভাবে সাজানো থাকে। আগ্রহী যে কেউ সহজেই তথ্য সংগ্রহ করতে পারে নিমিষেই।

 . সহজেই তথ্য পরিবর্তন পরিমার্জন: কোন তথ্যের পরিবর্তন, পরিমার্জন বা নতুন কোন তথ্য প্রচার করতে হলে তা ওয়েবসাইটে সহজেই কোন খরচ ছাড়াই করা যায়। সহজে অনেক তথ্য রাখতে পারবেন এখানে। ছবি, ভিডিওর মতো কনটেন্ট দিয়ে জানাতে পারবেন নিজের প্রতিষ্ঠানকে। আর যে কোন ব্যবসার সার্ভীস ও মূল্যমানও দিন দিন পরিবর্তিত হয় তাই আপনার সার্ভিসের মূল্য মানও পরিবর্তিত করতে পারবেন।

৫.পেশাগত চিত্র (Professional Image) তৈরীতে সহায়কঃ যেকোনো প্রতিষ্ঠান এর ওয়েবসাইট প্রতিষ্ঠানটিকে একটি অন্যতম উচ্চতায় নিয়ে যায়। বর্তমানে সবাই যেহেতু ইন্টারনেট এর দিকে আগ্রহী তাই সবার চোখে আলাদা মূল্যায়ন পেতে ওয়েবসাইট বেশ গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে।

৬. আন্তর্জাতিক বাজারে প্রবেশ: ওয়েবসাইট এর মাধমে যে কোন প্রতিষ্ঠান আন্তর্জাতিক বাজারে নিজেকে উপস্থাপন করতে সক্ষম হয়। কারন ওয়েবসাইট একই সাথে বিশ্বের সব দেশ থেকে দেখা যায় এবং যে কেউ যেকোনো সময় প্রয়োজনীয় তথ্য সংগ্রহ করতে পারে।

৭. উন্নত গ্রাহক সেবা:  ওয়েবসাইট এর মাধ্যমে আপনার ক্লাইন্টদের কাছ থেকে আপনার প্রতিষ্ঠান/প্রোডাক্ট এর সম্পর্কে মতামত নেয়া যায়। ভবিষ্যতে আপনার কাছ থেকে তারা কি সার্ভিস আশা করেন, বর্তমান সার্ভিসে তারা কতটুকু সন্তুষ্ট, কোন দিক যদি কারো ভাল লাগে বা না লাগে সে ব্যাপারে মতামতও নিতে পারবেন। এরকম নানাবিধ তথ্য কোন ঝামেলা ছাড়াই আপনি আপনার ওয়েবসাইট ভিজিটর দের কাছ থেকে (নিতে)জড়ো করতে পারেন। অনেকের প্রশ্ন ও উত্তরের সহজ একটা ইন্টারফেস বানাতে পারবেন।

৮.প্রতিযোগী থাকতে: প্রতিষ্ঠান ছোট পরিসর থেকে অনেক বড় পরিসরে প্রবেশ করার ক্ষেত্রে ওয়েবসাইট গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রাখে। যদি আপনি প্রাতিষ্ঠানিক হয়ে থাকেন, তবে আপনি অবশ্যই প্রতিযোগিতায় আছেন অন্যদের সাথে। খোজ নিয়ে দেখুন, আপনার প্রতিদ্বন্দী প্রতিষ্ঠানগুলোর ওয়েবসাইট অবশ্যই আছে।

নিজের একটি স্ট্যান্ডার্ড ও ব্রান্ড গঠনের জন্যও সহজ সমাধান ওয়েবসাইট।

No comments:

Post a Comment